Sat. Sep 26th, 2020

Onesylhet24.com

Online News Paper

বাংলাদেশ ক্রিকেট দলের খেলার ধারা বিবরণী শুরু থেকেই সম্প্রচার করে আসছে বাংলাদেশ বেতার

বাংলাদেশ ক্রিকেট দলের খেলার ধারা বিবরণী শুরু থেকেই সম্প্রচার করে আসছে বাংলাদেশ বেতার। শুধু ক্রিকেটই নয়, ফুটবলসহ দেশের অন্যান্য জাতীয় খেলারও ধারা বিবরণী সম্প্রচার করে থাকে বাংলাদেশ বেতার। সেই ১৯৯৭ সালে আইসিসি ট্রফি জয় থেকে শুরু এখনো পর্যন্ত বাংলাদেশের সব খেলার বল টু বল ধারা বিবরণী সম্প্রচার করে থাকে বাংলাদেশ বেতার।

১৯৯৭ সালের আইসিসি ট্রফি ফাইনাল ম্যাচের খবর নিতে লক্ষ লক্ষ ক্রিকেট প্রেমি কান পেতে ছিলেন বাংলাদেশ বেতারে। সেই ফাইনাল ম্যাচ জয়ের খবর ধারা বিবরণীর মাধ্যমে বাংলার ঘরে পৌছে দিয়েছিল বাংলাদেশ বেতার। সেই ধারা অব্যাহত রাখতে চায় বাংলাদেশ বেতার, সিলেট আন্তর্জাতিক ক্রিকেট স্টেডিয়ামে বাংলাদেশ বনাম জিম্বাবুয়ের প্রথম ওয়ানডে ম্যাচ দেখতে আসেন বাংলাদেশ বেতারের বাণিজ্যিক কার্যক্রম পরিচালক মীর শাহ আলম। তখন তিনি জানান যে, বাংলাদেশ বেতার সব সময় বাংলাদেশ ক্রিকেট দলের খেলা সব সময় সম্প্রচার করে যাবে।

মীর শাহ আলম বলেন, ‘বাংলাদেশ ক্রিকেট, ক্রিকেট বোদ্ধা এবং বাংলাদেশ বেতার এটা একাকার, আমাদের ক্রিকেটারদের যে পরিচয়, ক্রিকেটারদের গর্জন একমাত্র বাংলাদেশ বেতারের মাধ্যমেই আমরা দর্শকদের মাঝে তুলে ধরতে পেরেছি। বাংলাদেশের প্রথম টেস্ট ম্যাচের এক বল এক রান, বল টু বল এভাবেই ধারা বিবরণী করেছিল বাংলাদেশ বেতার।’

১২ টি স্টেশনের মাধ্যমে সারা দেশে পাশাপাশি প্রতিবেশি দেশগুলোতেও ট্রান্সমিশনের মাধ্যমে শব্দ পৌছে দিতে পারছে বাংলাদেশ বেতার। ভবিষত্যে ডিজিটাল প্রযুক্তি ব্যবহারের মাধ্যমে বিশ্বের বিভিন্ন প্রান্তে বাংলাদেশের খেলাধুলাকে তুলে ধরতে চায় বাংলাদেশ বেতার। সেজন্য ফেইসবুকে বাংলাদেশ বেতার অডিও লাইভ সম্প্রচার করে থাকে। আগামীতে স্যাটেলাইট এবং অ্যাপসের মাধ্যমে সম্প্রচার করে বাংলাদেশের খেলাধুলা সম্প্রচার করে যাবে বাংলাদেশ বেতার। খেলাধুলার ধারা বিবরণী সম্প্রচারের মাধ্যমে যুব সমাজ খেলাধুলার ঝুকবে। ফলে যুব সমাজ মাদকাসক্ত হবে না, খারাপ কাজে যাবে না।

মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাও বাংলাদেশ বেতারের অ্যাপসের মাধ্যমে খেলাধুলার ধারা বিবরণী দর্শকদের কাছে তুলে ধরতে বলেছেন। বাংলাদেশ বেতারের বানিজ্যিক কার্যক্রমের ঐ পরিচালক বলেন, মাননীয় প্রধানমন্ত্রী বলেছেন খেলাটাকে যাতে রেডিও সেট ছাড়া অ্যাপসের মাধ্যমে জনগনের একদম কাছে পৌছে দিতে হবে। আমাদের এখন ট্রান্সমিশন যেসব যন্ত্র আসছে সব গুলোই ডিজিটাল। আশাকরি আমরা অ্যাপসের মাধ্যমে সেটা করতে পারব।’