Main Menu

রমজানের রোজা ফরজ হওয়ার শর্ত

রোজা বা সিয়াম ইসলাম ধর্মের পাঁচটি মূল ভিত্তির তৃতীয়। রোজা উম্মাতে মুসলিমার ওপর ফরজ হয়েছে দ্বিতীয় হিজরিতে। রোজা ফরজ হওয়ার শর্ত যাদের মাঝে বিদ্যমান থাকবে, তাদেরকে রোজা রাখতে হবে। কারণ তাদের জন্য রোজা রাখা ফরজ বা আবশ্যক কর্তব্য। আল্লাহ তাআলা কুরআনে বলেন, ‘তোমাদের মধ্যে যারা এই (রমজান) মাস পাবে, তারা যেন এ মাসে রোজা পালন করে। (সুরা বাক্বারা : আয়াত ১৮৫)। বান্দার প্রতি রোজা ফরজ হওয়ার শর্তগুলো তুলে ধরা হলো-

রোজা ফরজ হওয়ার শর্ত-

১. মুসলিম হওয়া। অমুসলিমের ওপর রোজার বিধান নেই।

২. প্রাপ্ত বয়স্ক হওয়া। অপ্রাপ্ত বয়স্ক ছেলে মেয়ের ওপর রোজা ফরজ নয়।

৩. জ্ঞান সম্পর্ণ হওয়া। অর্থাৎ মস্তিষ্ক বিকৃত (পাগল) লোকের ওপর রোজা ফরজ নয়।

৪. হায়েয তথা ঋতুকাল এবং নিফাস তথা সন্তান জন্মদান পরবর্তী সময়ে পবিত্র থাকা। মহিলাদের হাফেজ ও নিফাসের সময়ে রোজা রাখা যাবে না। হায়েজ-নিফাসের কারণে যে কয়টা রোজা ভঙ্গ হবে, তা পরবর্তীতে কাজা করে নিতে হবে।

৫. রোজা পালন সামর্থবান হওয়া।

৬. শরয়ী মুসাফির না হওয়া। কারণ মুসাফিরের জন্য রোজা ফরজ নয়।
যারা রোজা পালনের শর্তগুলোর আওতায় থাকবে; তাদের জন্য রোজা পালন করা আবশ্যক। আল্লাহ তাআলা মুসলিম উম্মাহর এ ৬ শ্রেণির লোকদের পবিত্র রমজান মাসের রোজা আদায় করার তাওফিক দান করুন।






Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *