Sun. Mar 29th, 2020

Onesylhet24.com

Online News Paper

সিলেটে র‍্যাব ও পুলিশের সাথে পৃথক ‘বন্দুকযুদ্ধে দুজন নিহত

সিলেটে র‍্যাব ও পুলিশের সাথে পৃথক ‘বন্দুকযুদ্ধের’ ঘটনায় দুজন নিহত হয়েছেন।

শুক্রবার রাত ৩টার দিকে উপজেলা সদরের বিশ্বনাথ-জগন্নাথপুর বাইপাস সড়কের মরমপুর-সুরিরখাল এলাকার মধ্যবর্তী জায়গায় সড়কের পার্শ্বের গাছ কেটে ডাকাতির প্রস্তুতি নিচ্ছিল অস্ত্রধারী একটি ডাকাত দল।

নিয়মিত টহলের অংশ হিসেবে শুক্রবার দিবাগত ভোররাত আনুমানিক সাড়ে ৩টার দিকে থানার এসআই মিজানুর রহমান তার সঙ্গীয় কনস্টেবল চন্দন গৌর ও রাসেল দাসকে নিয়ে এলাকা টহল দিচ্ছিলেন।

পুলিশের গাড়ি দেখতে পেয়ে ডাকাত দল পুলিশকে লক্ষ্য করে গুলি করতে শুরু করে। এতে পুলিশ সদস্যরা গুলিবিদ্ধ হয়ে গুরুতর আহত হন।

খবর পেয়ে থানার অফিসার ইন-চার্জ (ওসি) শামীম মুসা,(পরিদর্শক তদন্ত) রমা প্রসাদ চক্রবর্তী, এসআই নূর হোসেন, দেবাশীষ শর্ম্মা একটি ফোর্স নিয়ে ঘটনাস্থলে উপস্থিত হন। পুলিশের উপস্থিতি বাড়ছে টের পেয়ে ডাকাতদল দুটি ভাগে বিভক্ত হয়ে পুলিশকে লক্ষ্য করে গুলি ছুড়ে পালানোর চেষ্টা করে। পুলিশও তখন পাল্টা গুলি করে।

এরপর স্থানীয় লোকজনকে সাথে নিয়ে পুলিশ ঘটনাস্থল তল্লাশি করলে মাটির উপর এক ডাকাত সদস্যের লাশ উদ্ধার করে। এ সময় ওই ডাকাত সদস্যের হাতে একটি দেশীয় পাইপগান ও কোমরে থাকা ৩টি তাজা কার্তুজ পাওয়া জায়।

পুলিশ বলেছে নিহত ব্যক্তি ডাকাত দলের সদস্য। এ ঘটনায় পুলিশের তিন সদস্য আহত হয়েছেন।

বিশ্বনাথ থানার অফিসার ইন-চার্জ (ওসি) শামীম মুসা বলেন, এ ঘটনায় থানায় মামলা দায়েরের প্রস্তুতি চলছে।

অপরদিকে শুক্রবার (২১ ফেব্রুয়ারি) দিবাগত মধ্যরাতে গোলাপগঞ্জের কদুপুর এলাকায় র‍্যাবের সাথে বন্দুকযুদ্ধে আলী হোসেন নামের একজন নিহত হয়েছেন। এ সময় ৫ জনকে গ্রেপ্তার করা হইয়েছে। পুলিশের দাবি তিনি শীর্ষ সন্ত্রাসী। এ সময় একজন র‍্যাব সদস্য গুলিবিদ্ধ হয়েছেন।

র‍্যাব-৯ জানিয়েছে একাধিক মামলার আসামি, শীর্ষ সন্ত্রাসী আলী হোসেনকে গ্রেপ্তার করতে অভিযান চালালে সে তার দলবল নিয়ে গুলি ছুঁড়ে। এসময় র‍্যাব পালটা গুলি চালালে আলী হোসেন নিহত হয়।