Wed. Sep 30th, 2020

Onesylhet24.com

Online News Paper

হাওরে বাঁধ নির্মাণকাজ নিয়ে শঙ্কা কাটছে না

সুনামগঞ্জের জগন্নাথপুর উপজেলায় ফসল রক্ষা বাঁধের ২৬ প্রকল্প পরিদর্শন করে কাজের অগ্রগতিতে অসন্তোষ প্রকাশ করেছেন উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা ও হাওরের ফসল রক্ষা বাঁধ সংস্কার ও তদারক কমিটির সভাপতি মাহফুজুল আলম। এদিকে, ধরমপাশার চারটি হাওর পানি উন্নয়ন বোর্ডের আওতায় এনে দ্রুত বাঁধের কাজ শুরু করার দাবিতে মানববন্ধন করেছেন স্থানীয় লোকজন।

জগন্নাথপুর উপজেলায় এবার ৪৫টি প্রকল্প বাস্তবায়ন কমিটির মাধ্যমে হাওরের ফসল রক্ষা বাঁধের কাজ বাস্তবায়ন করা হচ্ছে। পানি উন্নয়ন বোর্ড (পাউবো) জগন্নাথপুর উপজেলা কার্যালয় সূত্র জানায়, এবার ৪২ দশমিক ৩১ কিলোমিটার বাঁধের কাজ হচ্ছে। এ কাজের জন্য বরাদ্দ দেওয়া হয়েছে তিন কোটি টাকা। গত ১৫ ডিসেম্বর থেকে কাজ শুরু হয়েছে। ২৮ ফেব্রুয়ারি কাজ শেষ হওয়ার কথা।

পাউবোর উপজেলা উপসহকারী প্রকৌশলী হাসান গাজী বলেন, ৪৫টি প্রকল্পের কাজ নির্ধারিত সময়ের মধ্যে শেষ করার লক্ষ্যে তাঁরা কাজ করছেন। এর মধ্যে মাটি কাটার কাজ শেষ পর্যায়ে। বাঁধে কমপেকশন, স্লোপ আর ঘাস লাগানোর কাজ বাকি।

উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মাহফুজুল আলম বলেন, ২৬টি প্রকল্পের কাজ পিছিয়ে রয়েছে। মাটির কাজ হলেও স্লোপ, কমপেকশন (বাঁধের ঢাল শক্ত করার কাজ) হয়নি। তাই দ্রুত এসব ঠিক করে নীতিমালা অনুযায়ী কাজ শেষ করতে নির্দেশনা দেওয়া হয়েছে। এরপর কারও গাফিলতির প্রমাণ পাওয়া গেলে আইনি ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

এর আগে গত বৃহস্পতিবার জগন্নাথপুরের মইয়ার হাওরের স্টিল ব্রিজ এলাকায় কয়েকটি বোরো ফসল রক্ষা বাঁধের কাজ পরিদর্শন করেন জগন্নাথপুর উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান আতাউর রহমান। এ সময় তাঁর সঙ্গে উপস্থিত ছিলেন ইউএনও মাহফুজুল আলম, উপজেলা পরিষদের ভাইস চেয়ারম্যান বিজন কুমার দেব প্রমুখ।

আতাউর এ সময় বলেন, বেড়িবাঁধের কাজের অগ্রগতি এখনো আশানুরূপ নয়। নীতিমালা অনুযায়ী সঠিক সময়ের মধ্যে বেড়িবাঁধের কাজ সম্পন্ন করতে হবে। কোনো প্রকল্প বাস্তবায়ন কমিটির কারণে যাতে পিআইসি প্রথায় বাধাগ্রস্ত না হয়, সেদিকে সবাইকে সজাগ থাকতে হবে।

ধরমপাশা উপজেলার মধ্যনগর থানাধীন শালদিঘা, মরিচাকুড়ি, চিন্নি ও হাসারানী—এ চার হাওর সুনামগঞ্জ পানি উন্নয়ন বোর্ডের আওতায় এনে দ্রুত ফসল রক্ষা বাঁধের কাজ শুরু করার দাবিতে মানববন্ধন হয়েছে। গতকাল বেলা ১১টার দিকে উপজেলার মধ্যনগর বাজারের স্থানীয় শহীদ মিনার চত্বরে হাওর বাঁচাও আন্দোলনের মধ্যনগর থানা কমিটি ও এলাকাবাসী এ মানববন্ধনের আয়োজন করে।

মানববন্ধনের শুরুতে জামালগঞ্জ উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান ও হাওর বাঁচাও আন্দোলনের জামালগঞ্জ উপজেলা কমিটির সভাপতি ইউসুফ আল আজাদের মৃত্যুতে শোক প্রকাশ করে এক মিনিট নীরবতা পালন করা হয়। পরে উপজেলা কমিটির সদস্যসচিব চয়ন কান্তি দাসের সঞ্চালনায় বক্তব্য দেন মধ্যনগর ইউনিয়ন পরিষদ চেয়ারম্যান প্রবীর বিজয় তালুকদার, হাওর বাঁচাও আন্দোলনের ধরমপাশা উপজেলা কমিটির যুগ্ম আহ্বায়ক আলাউদ্দিন, হাওর বাঁচাও আন্দোলনের মধ্যনগর থানা কমিটির আহ্বায়ক জহিরুল হক, কৃষক শামীম আহমেদ, রুহুল আমিন খান প্রমুখ।

মানববন্ধনে বক্তারা বলেন, এ চার হাওরে প্রায় ৬০০ হেক্টর বোরো জমি রয়েছে। হাওর চারটি পানি উন্নয়ন বোর্ডের আওতায় এনে দ্রুত ফসল রক্ষা বাঁধের কাজ শুরু করা উচিত। অন্যথায় আগাম বন্যার পানি হাওরে ঢুকে ফসলডুবির আশঙ্কা রয়েছে। ঊর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষকে এ ব্যাপারে তাঁরা দ্রুত প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেওয়ার দাবি জানান।